আপনার ফোনের স্টোরেজ শেষ


    অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের যুগে, যেটা বড় সমস্যা আপনার ফোনের স্টোরেজ অনেক থাকার পরও আপনার ফোনের স্টোরেজ ফুল হয়ে গেছে এমনটি দেখায়। তাহলে এই টিপসটি আপনার জন্য। চলুন দেখে আসি কি কররে এর সমাধান করা যায়।

     

    আপনার ফোনের সময়ের সাথে সাথে অ্যাপ, ফটো, অপারেটিং সিস্টেম এর জন্য ফোনের স্টোরেজ খুব কম সময়েই ফুল হয়ে যায়। এছাড়া আপনি যদি পুরাতন বা কম মানের ফোন ব্যবহার করেন, তাহলে এই সমস্যায় খুব তারাতাড়িই পড়তে হয়। আমরা অনেকে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ফোনকে ফরমেট করে দেই। স্টোরেজ সমস্যা থেকে রেহাই পেতে ফোন রিসেট বা ফরমেট করা স্থায়ী কোন সমাধান নয় অনেকটা গরু বিক্রি করে ছাগল কেনার মত।

     

    কিছু স্থায়ী সমাধান করতে পারেন –

     

    ১। স্টোরে দখলকারী অ্যাস চিহ্নিত করা

     

    একবার চিন্তা করে দেখুন কয়টি অ্যাপ আপনি নিয়মিত ব্যবহার করেন? আর কয়টি শুধু শুধু ফোনে ইন্সটল করা আছে? বেশির ভাগ সময় আমরা অযথা অ্যাপ ইন্সটল করে রাখি কিন্তু অ্যাপ গুলো ব্যবহার করি না, ফলাফলস্বরূপ অ্যাপগুলো বেশির ভাগ জায়গা দখল করে রাখে।

    কিছু অ্যাপ আমাদের প্রতিনিয়ত ব্যবহার করতে হয় যেমন, ইমেইল অ্যাপ, সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ, নিউজ অ্যাপ, দু’একটি গেম। এছাড়া অনেক কম অ্যাপই আছে যেগুলো আমাদের খুব কাজে লাগে।

    ফোনে আপনি সহজেই ইন্সটল করা অ্যাপ গুলো দেখতে পাবেন। প্রথমে Settings > Storage > Other apps এ চলে যান এখানে আপনি সব গুলো অ্যাপ দেখতে পাবেন। উপরে ডান পাশে ম্যানুতে ক্লিক করে Sort করতে পারবেন । এবার আপনি খুঁজে দেখুন। কোন অ্যাপটি আপনি ব্যবহার করেন না কিন্তু প্রচুর স্টোরেজ দখল করে। আছে। খুব বেশি প্রয়োজন না হলে আন-ইন্সটল করে দিন।

     

    ২। অফলাইন কন্টেন্ট ডিলিট করে দিন

     

    আমাদের ফোনে এমন অনেক অ্যাপ থাকে যেগুলো আমাদের সুবিধার জন্য অফ-লাইনে ডেটা জমা রাখে । কিভাবে অফ-লাইন কন্টেন্ট ক্লিয়ার করবেন, এজন্য আপনাকে অ্যাপ এ চলে যেতে হবে, Settings > Apps and notifications > চলে যান, নির্দিষ্ট অ্যাপ সিলেক্ট করুন, Storage and cache এ সিলেক্ট করে Clear Cache ক্লিক করুন। এছাড়া এই কাজটি সহজে করতে আপনি বিভিন্ন থার্ডপার্টি অ্যাপও ব্যবহার করতে পারেন। বাল্ক আকারে অ্যাপ Caches ক্লিয়ার করতে আপনি SD Maid অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন।


    আরও পড়ুন >> বাংলাদেশে সেরা ৫ মোবাইল ব্যাংকিং সেবা

     

    ৩। ছবি ও মিডিয়া ফাইল ক্লাউডে পাঠান

     

    আমরা সবাই জানি Google Photos এ আমাদের ছবি ব্যাকআপ থাকে। আপনি যদি রেজুলেশনের বিষয়টিতে  একটু ছাড় দিতে পারেন তাহলে এটা আপনার জন্য সেরা অপশন হতে পারে। একই সাথে এটি আপনার ড্রাইভের স্টোরেজের উপর কোন প্রভাব ফেলবে না।

     

    আপনিGoogle Photos এ ছবি রাখলে ইচ্ছে মত যেকোন সময় দেখতে পারবেন এবং লোকাল স্টোরেজও ফ্রি থাকবে। তাছাড়া Google Photos একটি চমক্কার ফিচার আছে। মাঝে মাঝে এটি অনস্ক্রিন নোটিফিকেশন দিয়ে আপনাকে কিছু স্টোরেজ ফ্রি করতে অফার দিবে। আপনি চাইলে নিজে থেকেও এটি চেক করে নিতে পারেন। Google Photos > Menu > Free up space 4 foto করুন। এখন আপনি দেখতে পারবেন কত গুলো ব্যাকআপ হয়েছে সেগুলো ফটো আপনি ডিলিট করে দিতে পারেন।

     

    ৪। ফাইল SD কার্ডে মুভ করুন। দিন দিন স্মার্টফোন গুলো থেকে SD তুলে দেয়া হচ্ছে। তবে প্রিমিয়াম ফোন গুলোতে এটি বেশি হয়। এর পেছনে অবশ্য কারণও আছে। SD কার্ড ফাইলের Read/write টাইম বাড়িয়ে দিতে পারে।

     

    ৫। Google Files ব্যবহার করুন। গুগল তাদের অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জন্য নিজস্ব ফাইল। ম্যানেজার নিয়ে এসেছে। ইউজার ইন্টারফেস সহ অ্যাপ বেশ চমক্কার কাজ করে। আপনার ফাইল গুলো সাজাতে এই অ্যাপটি আপনাকে সাহায্য করতে পারে। বর্তমানে প্রায় সব ফোনেই এই অ্যাপটি ইনস্টল করা থাকে।


    আরও পড়ুন >> Upay - উপায় ডিজিটাল সেবা ।। উপায় খুলুন ডিজিটাল হোন

     

    ফাইল ম্যানেজার হিসেবে এই অ্যাপ অন্যথার্ডপার্টি অ্যাপ এর  মত অনেক ফিচার না থাকলেও বেশ কাজের কিছু ফিচার রয়েছে। এই অ্যাপ দিয়ে আপনি ফাইল সুন্দর করে সাজানোর পাশাপাশি, টেম্পোরারি ফাইল রিমুভ করতে পারবেন। জানতে পারবেন কোন অ্যাপ গুলো বেশি জায়গা দখল করে আছে। কোন অ্যাপ গুলো অনেক দিন ব্যবহার করা হয় না।

     

    ৬। বিল্ড ইন স্টোরেজ ম্যানেজার ব্যবহার করুন আপনি যদি থার্ডপার্টি কোন অ্যাপ ব্যবহার করতে না চান তাহলেও সমস্যা নেই। প্রতিটি ফোনেই বিল্ট ইন স্টোরেজ ক্লিনার থাকে। আপনি চাইলে সেটিও ইউজ করতে পারেন। আপনি ফোনে ডিফল্ট ফাইল ম্যানেজারে যান, সেখানে। Analysis Storage নামে অপশন পাবেন। এখানে ক্লিক করে স্টোরেজ এনালাইসিস করতে পারেন। অথবা সেটিংস থেকে প্রয়োজন মত ফিচারটি কাস্টমাইজও করে নিতে পারেন।

     

    Post a Comment

    Please do not enter any spam link in the comment box.

    Previous Post Next Post